সরকারি দপ্তরে একটানা ৩ বছরের বেশি থাকতে পারবেন না কলেজ শিৰকরা

১২/০৪/২০১৭ ১:০৫ পূর্বাহ্ণ০ commentsViews: 17

এফএনএস: শিৰা ক্যাডারের কর্মকর্তারা একটানা তিন বছরের বেশি শিৰা মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বিভিন্ন দপ্তর, অধিদপ্তর ও সংস’ায় থাকতে পারবেন না। এছাড়া সরকারি কলেজের শিৰকরা চাকরি জীবনে তিনবারে সর্বোচ্চ ছয় বছরের বেশি শিৰা মন্ত্রণালয়ের অধীন দপ্তর, অধিদপ্তর ও সংস’ায় নিয়োগ পাবেন না। এমন বিধান রেখে গত সোমবার মন্ত্রণালয়ের অধীন বিভিন্ন দপ্তর, অধিদপ্তর ও সংস’ায় শিৰা ক্যাডারের কর্মকর্তাদের পদায়ন ও প্রেষণে পদায়নের নীতিমালা জারি করেছে শিৰা মন্ত্রণালয়। সরকারি কলেজের শিৰকরা প্রভাব খাটিয়ে শিৰা মন্ত্রণালয়ের অধীন বিভিন্ন দপ্তরে নিয়োগ নেন বলে অভিযোগ রয়েছে। কোনো কোনো ৰেত্রে এসব নিয়োগে আর্থিক লেনদেনেরও অভিযোগ পাওয়া যায়। এছাড়া অনেক শিৰক দলীয় প্রভাব খাটিয়ে শিৰা মন্ত্রণালয়ের অধীন বিভিন্ন দপ্তরের বছরের পর পর চাকরিতে বহাল থাকেন। শিৰা মন্ত্রণালয়ের অধীন বিভিন্ন দপ্তর, অধিদপ্তর ও সংস’ায় পদায়নের জন্য প্রতি বছরের এপ্রিল ও অক্টোবরে শিৰা ক্যাডারের কর্মকর্তাদের কাছ থেকে আবেদন নেওয়া হবে। নির্ধারিত মাসের ১৫ থেকে ৩০ তারিখের মধ্যে ই-মেইলে আবেদন জমা দিতে হবে। নির্ধারিত সময়ের আগে বা পরে দাখিলকৃত অথবা ই-মেইল বাদে অন্যভাবে দাখিল করা আবেদন বিবেচনায় নেওয়া হবে না। শিৰকদের কাছ থেকে আবেদন পাওয়ার পর শিৰা মন্ত্রণালয়ের কলেজ অনুবিভাগের প্রধানের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি কমিটি তা যাচাই করবে। এই কমিটিতে কলেজ অনুবিভাগের উপ-সচিব সদস্য এবং সরকারি কলেজ-১ শাখার জ্যেষ্ঠ সহকারী সচিব সদস্য সচিবের দায়িত্ব পালন করবেন। কমিটিকে শিৰকদের আবেদনপত্র জমার শেষ কর্মদিবসের ১০ দিনের মধ্যে প্রাথমিকভাবে যোগ্য প্রার্থীদের তালিকা করতে হবে। এরপর শিৰামন্ত্রীর নেতৃত্বে চার সদস্যের আরেকটি কমিটি প্রাথমিকভাবে যোগ্য প্রার্থীদের সাৰাৎকার নিয়ে একটি ফিটলিস্ট তৈরি করবে। এই ফিটলিস্ট থেকে বিভিন্ন দপ্তর, অধিদপ্তর ও সংস’ায় শিৰকদের পদায়ন করা হবে। এই কমিটিতে মাধ্যমিক ও উচ্চশিৰা অধিদপ্তরের সচিব ও সংশিৱষ্ট অনুবিভাগ/প্রতিষ্ঠান প্রধান সদস্য এবং উপসচিব (কলেজ) সদস্য সচিবের দায়িত্ব পালন করবেন। নীতিমালায় বলা হয়, কোনো কর্মকর্তা একটি দপ্তর, অধিদপ্তর ও সংস’ায় একসঙ্গে তিন বছরের বেশি থাকতে পারবে না। কোনো কর্মকর্তাকে একটি দপ্তর, অধিদপ্তর, সংস’া ও প্রকল্প থেকে বদলি করে অন্য কোনো দপ্তর, অধিদপ্তর ও সংস’ায় বদলি করা যাবে না। মধ্যবর্তী সময়ে তাকে কোনো কলেজে নূন্যতম দুই বছর কাজ করতে হবে। নীতিমালায় বলা হয়, একজন কর্মকর্তা সমগ্র চাকরিজীবনে অনধিক তিনবার সর্বমোট ছয় বছরের বেশি দপ্তর, অধিদপ্তর ও সংস’ায় থাকতে পারবেন না। তবে এ ৰেত্রে কোনো কারণে ওএসডি হিসেবে কর্মকালকে বিবেচনা করা হবে না। নীতিমালায় যাই থাক না কেন, সরকার জর্বরি প্রয়োজনে যে কোনো সময় যে কোনো কর্মকর্তাকে যে কোনো দপ্তর, অধিদপ্তর ও সংস’ায় পদায়ন করতে পারবে বলেও নীতিমালায় উলেৱখ রয়েছে। এই নীতিমালা জারির পর থেকে এ বিষয়ে আগের নেওয়া অন্য যে কোনো সিদ্ধান্ত, নীতিমালা এসব প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের ৰেত্রে অকার্যকর বলে গণ্য হবে।

Leave a Reply