খুলনা থেকে কলকাতায় ট্রেন চালু হচ্ছে আজ

08/04/2017 1:06 am0 commentsViews: 7

এফএনএস: খুলনা-কলকাতা র্বটে প্রথম যাত্রীবাহী ট্রেন মৈত্রী এক্সপ্রেস-২ চালু হচ্ছে আজ শনিবার। আজ সকাল ৮টায় খুলনা স্টেশন থেকে পরীৰামূলকভাবে ট্রেনটি ছেড়ে যাবে কলকাতার উদ্দেশে। সংশিৱষ্টরা জানান, আনুষ্ঠানিকভাবে ট্রেনটি চালু হলে খুলনাবাসী বেনাপোল স’লবন্দর হয়ে সাড়ে তিন ঘণ্টায় যেতে পারবেন কলকাতায়। সংশিৱষ্ট সূত্রে জানা যায়, সকাল ১০টায় বেনাপোলে স’লবন্দরে খুলনা-কলকাতার মধ্যে পরীৰামূলক আন্তঃদেশীয় ট্রেনটি নয়াদিলিৱ থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি উদ্বোধন করবেন। বেনাপোল স্টেশন থেকে রেলপথমন্ত্রী মুজিবুল হক এ ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দেবেন। অনুষ্ঠানের পর ট্রেনটি কলকাতা যাবে এবং রোববার সকাল ৮টা ৫ মিনিটে কলকাতা থেকে খুলনায় ফিরে আসবে। খুলনা রেলস্টেশনে সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, দুই নম্বর পৱ্যাটফর্মে রাখা সাদার মাঝে লাল-সবুজ রেখা টানা বগিকে সাজানো হচ্ছে নববধূর রূপে। বিভিন্ন ধরনের ফুল ও রঙিন কাপড় দিয়ে সাজানো হচ্ছে ট্রেনটির ইঞ্জিনসহ পাঁচটি বগিকে। বেনাপোল রেলওয়ের স্টেশন মাস্টার খাইর্বজ্জামান গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় বলেন, খুলনা থেকে কলকাতা প্রায় ১৭৮ কিলোমিটার। খুলনা থেকে যশোর এক ঘণ্টা, যশোর থেকে বেনাপোল এক ঘণ্টা। আর বেনাপোল থেকে কলকাতা দেড় ঘণ্টা। খুলনা-কলকাতা র্বটে ট্রেন চালু হলে খুলনার মানুষ মাত্র সাড়ে তিন ঘণ্টায় কলকাতায় যেতে পারবেন। খুলনা রেলওয়ের স্টেশন মাস্টার কাজী আমির্বর ইসলাম জানান, পাঁচটি বগি ও একটি ইঞ্জিন নিয়ে পরীৰামূলকভাবে ট্রেনটি শনিবার সকাল ৮টায় যাত্রা শুর্ব করবে। তবে উদ্বোধনী এ ট্রেনে কোনো সাধারণ যাত্রী থাকবেন না। থাকবেন পদস’ কর্মকর্তারা। পরবর্তীতে যাত্রী নিয়ে ট্রেনটি কলকাতায় যাতায়াত শুর্ব করবে। এদিকে দীর্ঘ প্রতীৰার পর খুলনা-কলকাতা র্বটে ট্রেন চালু হওয়ার সংবাদে উচ্ছ্বসিত খুলনাসহ গোটা দৰিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যাত্রীরা। মাত্র সাড়ে তিন ঘণ্টার মধ্যে নিরাপদ ও স্বাচ্ছন্দ্যে রোগী, পর্যটক, ব্যবসায়ী কলকাতায় পৌঁছাতে পারবেন। এতে দু’দেশের আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্যেরও সমপ্রসারণ ঘটবে। বাড়বে বন্ধুত্বের সম্পর্ক। এমনটি মনে করছেন সংশিৱষ্টরা।
বাংলাদেশ-ভারত আরেকটি বাস: বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সরাসরি আরেকটি বাস সার্ভিসও শুর্ব হতে যাচ্ছে। কলকাতার সল্টলেক আন্তর্জাতিক বাস টার্মিনালে আজ শনিবার ঢাকা-খুলনা-কলকাতা র্বটের যাত্রীবাহী এই বাস সার্ভিসের উদ্বোধন করা হবে বলে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব চন্দন কুমার দে জানান। তিনি বলেন, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গতকাল শুক্রবার বিকালে বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট দিয়ে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের ২২ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল ভারত গেছে। দিলিৱ থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ সার্ভিস উদ্বোধন করবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেদ্র মোদী, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কলকাতার সল্টলেক আন্তর্জাতিক বাস টার্মিনাল থেকে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীও সরাসরি এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন বলে জানান চন্দন কুমার। চন্দন আরও বলেন, বাসটি চলবে ঢাকা-খুলনা-কলকাতা র্বটে। এই র্বটে ‘ভারতীয় ভূতল পরিবহন নিগম’ আর বাংলাদেশের বিআরটিসির পৰে ‘গ্রিন লাইন পরিবহন’ বাস পরিচালনা করবে। মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি দলের প্রধান চন্দন কুমার দে বেনাপোল চেকপোস্টে বলেন, এবার ঢাকা-খুলনা-কলকাতা সরাসরি বাস সার্ভিস চালু হচ্ছে। এর ফলে শুধু ঢাকা বা ওই এলাকা নয়, দেশের দৰিণাঞ্চলের বিপুল সংখ্যক অধিবাসী উপকৃত হবেন। রোগী ও বৃদ্ধরা সরাসরি বাসে করে কলকাতায় চিকিৎসাসহ সব ব্যবসায়িক কাজে সুবিধা পাবেন। গ্রিন লাইনকে মন্ত্রণালয় বিআরটিসির পৰে আন্তর্জাতিক এ র্বটে বাস পরিচালনার দায়িত্ব দিয়েছে বলে তিনি জানান। বর্তমানে ঢাকা-কলকাতা, কলকাতা-ঢাকা-আগরতলা, কলকাতা-খুলনা সরাসরি বাস সার্ভিস চালু আছে। কলকাতা-খুলনা-ঢাকা হলো এ ধরনের চতুর্থ সরাসরি বাস সার্ভিস।

Leave a Reply