তিস্তা চুক্তির বিষয়ে আশাবাদী শেখ হাসিনা সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় নিতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ মোদি

০৮/০৪/২০১৭ ১:০৮ পূর্বাহ্ণ০ commentsViews: 4

সোনালী ডেস্ক: ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় নিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দৃঢ়প্রতিজ্ঞ বলে জানিয়েছেন। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিজি-১০৯৭ ভিভিআইপি ফ্লাইটটি শুক্রবার (০৭ এপ্রিল) স’ানীয় সময় দুপুর ১২টা ০২ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় ১২টা ৩২ মিনিট) নয়াদিলিৱতে ভারতীয় বিমানবাহিনীর পালাম স্টেশনে অবতরণ করে। সেখানে তাকে বিমানবন্দরে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।
এরপর এক টুইট বার্তায় মোদি বলেন, শেখ হাসিনা এবং আমি দৃঢ়প্রতিজ্ঞ, যাতে করে এই সফরের মাধ্যমে দুই দেশের সম্পর্ক একটি নতুন উচ্চতায় যায়। চারদিনের সফরে শেখ হাসিনা থাকছেন দিলিৱর ঐতিহ্যবাহী রাষ্ট্রপতি ভবন রাইসিনা হিলে। এছাড়া তার সঙ্গে রয়েছে ৬ মন্ত্রী ২৫ সচিবসহ ৩৫১ সফরসঙ্গী। এদিন সকাল ১০টায় নয়াদিলিৱর উদ্দেশে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছেড়ে যায় প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী ‘আকাশপ্রদীপ’।
এদিকে ভারত সফরে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বহুল আলোচিত তিস্তা পানিবণ্টন চুক্তির বিষয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। শুক্রবার (৭ এপ্রিল) ভারতীয় অন্যতম শীর্ষ সংবাদপত্র ‘দ্য হিন্দু’তে প্রকাশিত এক অনুচ্ছেদে সেই আশাবাদের কথাই জানানো হয়েছে।
সংবাদমাধ্যমটি বলছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরে বাংলাদেশ ও ভারতের সহযোগিতাপূর্ণ সম্পর্ক ‘নতুন উচ্চতায়’ দাঁড়াবে বলে জানিয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে তিস্তা পানি বণ্টন চুক্তি স্বাৰরের বিষয়েও প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন শেখ হাসিনা। দ্য হিন্দু’র সম্পাদকীয় পৃষ্ঠায় প্রকাশিত শেখ হাসিনার উদ্ধৃতিতে বলা হয়, ভারতে আমার চারদিনের সফর। আমার দেশের জনগণের পৰ থেকে ভারতবাসীকে আমি উষ্ণ অভিনন্দন জানাই। আমি আশা করি, আমার এই সফরের মধ্যদিয়ে বাংলাদেশ ও ভারত দু’দেশের মধ্যে সহযোগিতাপূর্ণ সম্পর্ক আরও ভালো হবে, নতুন এক উচ্চতায় দাঁড়াবে।
শেখ হাসিনা বলেন, আমি একজন আশাবাদী মানুষ। আমি আমার প্রতিবেশী দেশের নেতাদের ও জনগণের সুনামের ওপর বিশ্বাস রাখতে পছন্দ করি। বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে কিছু ইস্যু আছে। কিন’ আমি বিশ্বাস করি, যে কোনো সমস্যা শান্তিপূর্ণ উপায়ে সমাধান হতে পারে। স’ল সীমান্ত চুক্তি বাস্তবায়নের মাধ্যমে আমরা আমাদের ইচ্ছা শক্তির প্রামাণ দিয়েছি। কিছু সাধারণ নদীর পানি বণ্টন সংক্রান্ত সমস্যা সমাধান হওয়া প্রয়োজন বলেও মনে করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

Leave a Reply