বাগাতিপাড়ায় কমপেৱক্স ভবন থেকে মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

07/04/2017 1:06 am0 commentsViews: 26

নাটোর  ও বাগাতিপাড়া প্রতিনিধি: নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপেৱক্স ভবন থেকে মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার রশিদুন্নবী বেফিন’র (৬৫) ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ভবনের তৃতীয় তলার বেলকনির জানালার গ্রিলের সাথে রশিতে ঝুলিয়ে থাকা এ লাশ উদ্ধার করা হয়। পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ তাকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। তবে ঘটনাটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা এ বিষয়ে নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ।  রশিদুন্নবী বেফিন উপজেলার সাইলকোনা গ্রামের মৃত খন্দকার এ কে এম আফসার আলীর ছেলে।
পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে কমপেৱক্সের আয়া সামিরা ঝুলন্ত অবস’ায় প্রথমে লাশটি দেখতে পেয়ে স’ানীয়দের জানান। এরপর স’ানীয়রা পুলিশকে খবর দিলে ঘটনাস’ল থেকে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। এসময় একই তলায় পূর্বদিকে রাখা এক টেবিলের ওপর থেকে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের উপজেলা শাখার প্যাডে লেখা চিঠি পেয়েছে পুলিশ। ওই চিঠিতে মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারের অফিসিয়াল সিল সংবলিত লেখা রয়েছে। এতে লেখা রয়েছে, ‘আমি মো: রশিদুন্নবী এই মর্মে স্বীকার করিতেছি যে, আমার বুকে দারুন ব্যথা। আমি সহ্য করিতে না পারিয়া মৃত্যুর পথ বেছে নিলাম। আমার মৃত্যুর জন্য আমার সংসদের কেহ দায়ী নহে দয়া করে প্রশাসন আমার সংসদের কাউকে দায়ী করবেন না। আমার শরীর খারাপ বেশি লিখতে পারলাম না। ইতি- মো : রশিদুন্নবী, ৫/৪/২০১৭ইং’ । পুলিশ আরো জানিয়েছে, মৃতের মাথার বাম পাশে আঘাতের চিহ্ণ রয়েছে। ঘটনাস’ল থেকে কীটনাশকের বোতল উদ্ধার করা হয়েছে। এদিকে মৃত মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বেফিনের ব্যবহৃত মোবাইলফোনের সন্ধান পাচ্ছে না পুলিশ। তবে মোবাইলফোন সেটটির সন্ধান অব্যাহত রেখেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।
মৃতের ভাই জুলফিক্কার জানান, কমান্ডার বেফিন বুধবার সকালে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা অফিসের উদ্দেশ্যে শাইলকোনাস’ বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফিরে যাননি। বৃহস্পতিবার সকালে লোকমুখে তার মৃত্যুর খবর পেয়ে ছুটে এসে লাশ দেখতে পান। তবে তিনি অভিযোগ করেন, তার ভাইকে কেউ হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রেখেছে।
এদিকে খবর পেয়ে তাৎৰণিকভাবে ঘটনাস’ল পরিদর্শন করেন নাটোর-১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাড. আবুল কালাম, উপজেলা চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত ইউএনও আহসান হাবিব জিতু ও নাটোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খাইর্বল আলম।
এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খাইরুল আলম জানান, এক দিকে গলায় রশি দিয়ে ঝুলিয়ে থাকা অন্যদিকে লাশের পাশে কীটনাশকের বোতল বিষয়টি অস্বাভাবিক। উদ্ধারকৃত চিঠি যাচাই বাছাইয়ে প্রেরণ করা হবে। তবে এটি আত্মহত্যা নাকি হত্যাকা- তা তদন্তের পর নিশ্চিত হওয়া যাবে।
এদিকে রশীদুন্নবী বেফিনের মৃত্যুর খবরে বাগাতিপাড়া উপজেলা জুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তার বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। মা রেনুকা, স্ত্রী সুফিয়া বেগমসহ পরিবারের সদস্যদের আহাজারিতে ভারি হয়ে উঠেছে সেখানকার পরিবেশ।

Leave a Reply