পানি লাইনের খোঁড়া রাস্তার মাটি পরিষ্কার না হওয়ায় দুর্ভোগ

06/04/2017 1:07 am0 commentsViews: 15

স্টাফ রিপোর্টার: নগরীর সাগরপাড়া ও বোসপাড়া এলাকায় পানির লাইনের জন্য খোঁড়া রাস্তার মাটি পরিষ্কার না হওয়ায় দুর্ভোগের কবলে পড়েছেন এলাকাবাসী। গত এক সপ্তাহ ধরে সাগরপাড়া ও বোসপাড়া এলাকার মধ্যে পানি সংযোগের জন্য চলছে পাইপ লাইন বসানোর কাজ। ওই এলাকায় পাইপ লাইন বসানোর কাজ শেষ হলেও খোঁড়া মাটি ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকায় বৃষ্টিতে রাস্তা কর্দমাক্ত হচ্ছে এবং তা গিয়ে ঢুকছে এলাকাবাসী বাড়িতে। এর ফলে সামান্য বৃষ্টিতে ওই রাস্তা দিয়ে মানুষের চলাচল করাই দায় হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই খোঁড়া রাস্তার মাটি অবিলম্বে পরিষ্কার করার দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।
নগরীর শাহ মখদুম কলেজের বিপরীতে পদ্মা কমিউনিটি সেন্টার থেকে শুর্ব হয়ে কাইউম ডাক্তারের বাড়ি হয়ে অ্যাড:, মতিউর রহমানের বাড়ি পর্যন্ত পানির পাইপ লাইনের সংযোগ দেয়ার কাজ চলছে। ড্রেনের ধার দিয়ে মাটি খুঁড়ে পানির পাইপ বসানো হচ্ছে। পাইপ বসাতে গিয়ে রাস্তার ধার দিয়ে খোঁড়া মাটি জমে থাকায় রাস্তা হয়ে পড়েছে অপ্রশস্ত। এর ফলে এ রাস্তা দিয়ে রিকশা ও অটো আসতে অস্বীকার করায় এলাকাবাসীর চলাচলে অসুবিধার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। জানা গেছে যে, উক্ত রাস্তা মেরামত করবে রাজশাহী সিটি করপোরেশন। এর ফলে এরলাকাবাসীর আশঙ্কা, ওই রাস্তা এত সহজে মেরামত হবেনা।
ইতোপূর্বে নগরীতে গ্যাস লাইন পানির লাইন দিতে গিয়ে নগরীর অধিকাংশ এলাকার রাস্তা খুঁড়ে গ্যাস ও পানি সংযোগ দেয়া হয়। অথচ কয়েক বছর অতিবাহিত হলেও খোঁড়া রাস্তাগুলোর মেরামতের কোন অগ্রগতি নাই। মেরামতের কথা বারবার বলা হলেও রাজশাহী সিটি করপোরেশন কর্তৃপৰ মেরামতের কথা দিয়েও কথা রাখেনি। নতুনভাবে পানির পাইপ লাইন বসানোর ফলে সেই খোঁড়া রাস্তার সেই অবস’ার পুনরাবৃত্তি ঘটবে কিনা এ আশঙ্কায় এলাকাবাসী।
এদিকে পানির পাইপ লাইন দিতে গিয়ে যে রাস্তা খোঁড়া হায়েছে তার ৰতিপূরণ বাবদ ওয়াসার পৰ থেকে রাসিককে অর্থ প্রদানের কথা রয়েছে বলে ওয়াসার পৰ থেকে জানানো হয়েছে।
এ ব্যাপারে ওয়াসার তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী পারভেজ মামুদ বলেন, লাইনের উপর যে মাটি রাখা হয়েছে সে মাটি বসে গেলেই রাস্তা স্বাভাবিক হয়ে যাবে। আর  খোঁড়া রাস্তা মেরামত বাবদ রাসিককে ৰতিপূরণ দেয়া হবে। সে অর্থ দিলেই ওই রাস্তা তারা মেরামত করবে বলে জানান রাজশাহী ওয়াসার এই প্রকৌশলী ।
এদিকে নগরীর ২৮ নং ওয়ার্ডের কাজলা-ধরমপুর এলাকার একই দশা হয়েছে ওয়াশার পানির পাইপ লাইন স’াপন কাজে। রাস্তার এক পাশে পানির লাইন আছে আগে থেকেই। রাস্তার অপর পাশে নতুন করে পানির পাইপ লাইন স’াপনের কাজ করা হয়। এমনিতেই সরু ও ভাঙাচুরা রাস্তা। মেরামত বা প্রশস্তকরণের কোন উদ্যোগই নেয়া হয়নি। এ অবস’ায় সরু রাস্তার অপর পাশে নতুন করে পানির পাইপ লাইন স’াপনের পর স্তূপ রাখা হয়েছে মাটি ও রাস্তার ভাঙা ইট। ফলে রিকশা, অটোভ্যান, ব্যাটারিচালিত অটো, প্রাইভেট কারসহ বিভিন্ন যানবাহন চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে কাজলা মোড় থেকে কেডি ক্লাব মোড় পর্যন্ত পায়ে হেঁটে চলাও দুস্কর হয়ে পড়েছে পথচারীদের। ধরমপুর পশ্চিমপাড়া জামে মসজিদের দৰিণে কলতলা বাঁকে কালভার্টের দু পাশে পানির পাইপ লাইন স’ানের পর মাটি রাখা হয়েছে এক রকম ঢিবি করেই।

Leave a Reply