ভক্ত-দর্শনার্থীর মিলনমেলা ঠাকুরমান্দার রঘুনাথ মন্দিরে

06/04/2017 1:04 am0 commentsViews: 28

মান্দা (নওগাঁ) প্রতিনিধি: দীর্ঘ ১০ বছরের দাম্পত্যজীবনে সনৱান হয়নি। মা হওয়ার আশায় চিকিৎসকদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে ব্যর্থ হয়েছেন। অব-শেষে আশা নিয়ে এসেছেন নওগাঁর ঠাকুরমান্দা রঘুনাথ মন্দিরে। বুধবার সকালে তাকে মন্দির প্রাঙ্গনে শাড়ির আঁচল পেতে বসে থাকতে দেখা যায়। পরিচয়ে জানা গেল তিনি রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার কেশরহাট গ্রামের পলি রাণী।
পলি রাণী জানান, ঠাকুরের আশী-র্বাদে সনৱান পাবার আশায় মানত করতে এসেছেন। শুধু পলি রানী নয় সাথী রাণী, টুলটুলী রানী, শ্রীমতি আলোসহ আরো অনেক নারী সনৱানের আশায় শাড়ির আঁচল পেতে বসেছিলেন রঘুনাথ মন্দিরের সামনে।
নওগাঁর মান্দা উপজেলার ঠাকুর-মান্দায় অবসি’ত মন্দিরটি প্রায় তিন শ বছরের ঐতিহ্য বহন করে আসছে। প্রতি বছর চৈত্র মাসের নবম শুক্লা তিথিতে রামনবমীর মেলা উপলৰে দেশ-বিদেশের ভক্তদের আগমন ঘটে এখানে। মন্দিরটি ঘিরে কিংবদনৱী রয়েছে এখানে মানত করে বন্ধ্যা নারীরা সনৱান লাভ করে, দৃষ্টিশক্তি ফিরে পায় অন্ধরা। আরো অনেকে আসেন বিভিন্ন অসুখ-বিসুখ থেকে আরোগ্য পেতে।
বুধবার রাত ৩ টা ৪৫ মিনিটে রামচন্দ্রের বিগ্রহে পূজা-অর্চনার মধ্য দিয়ে এ বছর উৎসবের শুরু হয়। ৯ দিনব্যাপী এ ধর্মাচার ও উৎসব চলবে আগামি ১৩ এপ্রিল পর্যনৱ। উৎসব ঘিরে লৰাধিক ভক্ত ও দর্শনার্থীর সমাবেশ ঘটেছে।
মান্দা উপজেলা সদর থেকে ১০ কিলোমিটার পশ্চিমে ঠাকুরমান্দা জনপদে অবসি’ত এই মন্দিরটি হিন্দুদের অন্যতম তীর্থস’ান। পু-্র-বর্ধনের অন্যতম প্রাচীন জনপদ হিসেবে ঠাকুরমান্দার ঐতিহাসিক পরিচিতি রয়েছে। পাল আমলের বিভিন্ন প্রত্ন নিদর্শন এই জনপদ থেকে আবিষ্কৃত হয়।
প্রায় ২০ বছর ধরে মন্দিরটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন চন্দন কুমার মৈত্র। তিনি জানান, ঠাকুরমান্দা রঘুনাথ মন্দির উত্তরা-ঞ্চলের অন্যতম তীর্থস’ান। এ তীর্থ দর্শনে প্রতিবছর দেশ-বিদেশ থেকে লাখ-লাখ ভক্ত দর্শনার্থীর আগমন ঘটে। অনেকে মনোবসনা পুরনের লৰে মন্দিরে মানত করে। মন্দিরের উৎসবকে ঘিরে সকল সম্প্রদায়ের মানুষের মিলনমেলা হয়। মন্দির কমিটির সাধারণ সম্পাদক সত্যেন্দ্র-নাথ প্রামানিক জানান, মন্দিরের আবাসন সমস্যা দীর্ঘদিনের। হাজার হাজার ভক্ত মন্দিরে মানত করতে এসে খোলা আকাশের নিচে রাত যাপন করেন।
বুধবার ভোরে রাজশাহীতে নিযুক্ত ভারতের সহকারী হাইকমিশনার অভিজিত চট্টোপাধ্যায়, তার সহ-ধর্মিনী পত্রালিকা চট্টোপধ্যায় ও নওগাঁ-১ আসনের সাংসদ সাধন চন্দ্র মজুমদার, নওগাঁ পুলিশ সুপার মোজাম্মেল হক (বিপিএম, পিপি-এম), ইউএনও নুরুজ্জামানসহ প্রশা-সনিক কর্মকর্তারা মন্দির পরিদর্শন করেন।

Leave a Reply