নগরীতে হোটেল কর্মচারী খুন

১৯/০৩/২০১৭ ১:০৭ পূর্বাহ্ণ০ commentsViews: 114

স্টাফ রিপোর্টার: নগরীর গণক পাড়ার আবাসিক হোটেল আল হাসিব থেকে সিরাজুল ইসলাম (৪০) নামে এক হোটেল বয়ের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার সকালে হোটেলের একটি কৰ থেকে উক্ত হোটেল কর্মচারীর লাশটি উদ্ধার করা হয়।
পুলিশের ধারণা, তাকে হত্যা করা হয়েছে। তার মাথার পেছনে ও গলায় ছুরির আঘাতের চিহ্ন আছে। সে রাজশাহীর তানোর চাঁন্দুরিয়া এলাকার আব্দুল হামিদের ছেলে।
হোটেল ম্যানেজার রিপন চৌধুরী জানান, সকাল সাড়ে ৮টায় তিনি হোটেলে এসে দেখেন তার র্বমের জিনিসপত্র এলোমেলো হয়ে পড়ে আছে। মেঝেতে হোটেল বয় সিরাজুল ইসলাম ঘুমিয়ে থাকে, সে নেই। পাশের র্বমটি মালিকের চেম্বার, সেখানে ড্রয়ারের তালা খোলা, ১ হাজার ৪শ’ টাকা ছিল, সেটি নেই এবং মেইন গেটের তালা কাটা অবস’ায় পাওয়া যায়। এরপর তিনি একজনকে সঙ্গে নিয়ে সিরাজুলকে খুঁজতে গিয়ে ৪০২ নম্বর র্বমে তার প্যান্ট-শার্ট ঝুলানো অবস’ায় পান এবং ৪০৩ নম্বর র্বমটি বন্ধ পাওয়া যায়। এ অবস’ায় তিনি বোয়ালিয়া থানা পুলিশে খবর দিলে, র্বমের তালা ভেঙে সিরাজুল ইসলামের মেঝেতে পড়ে থাকা রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
তিনি আরো জানান, গত ১৬ মার্চ বিকালে একজন বর্ডার ব্যবসায়ী পরিচয়ে ৪০৩ নম্বর র্বমে ওঠে। উক্ত র্বমে এই হত্যার ঘটনা ঘটে এবং বর্ডারকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। এছাড়াও নাম রেজিস্ট্রি খাতার পাতাটি ছিঁড়ে নেয়া হয়েছে। পুলিশের প্রাথমিক ধারণা, হোটেল বয়কে প্রথমে গলায় ছুরিকাঘাত ও শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাদত হোসেন খান জানান, লাশটি ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, তাকে হত্যা করা হয়েছে। রাতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মামলা প্রক্রিয়াধীন ছিল।
এদিকে হোটেলের আরেক বয় সাজু জানান, সিরাজুল ইসলাম হোটেলে প্রায় ১৭ বছর ধরে কর্মরত ছিলেন। তিনি রাতে হোটেলে ম্যানেজারের র্বমে মেঝেতে ঘুমাতেন। গত শুক্রবার তার নাইট ডিউটি ছিল। তার নিজ বাড়ি রাজশাহীর তানোর চাঁন্দুরিয়া এলাকায় এবং শ্বশুর বাড়ি নগরীর আমবাগান এলাকায়।

Leave a Reply