সোনালী ডেস্ক: আদিবাসী বিষয়ক সংসদীয় ককাসের সভাপতি ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা এমপি বলেছেন, আদিবাসীদের জীবনমানের উন্নয়নের জন্য তাদের পাঁচ শতাংশ কোটা বহাল রাখার দাবি ন্যায্য।
গতকাল বুধবার সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-র্বনি মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।
জাতীয় আদিবাসী পরিষদ এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। সেখানে অতিথি হিসেবে বক্তব্য দিচ্ছিলেন রাজশাহী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা। তিনি বলেন, আদিবাসীসহ প্রতিবন্ধী, নারী, চা শ্রমিক, ৰুদ্র পেশাজীবী মানুষের জন্য কোটা বহাল রাখতে হবে। আদিবাসীদের কোটা বহালের দাবি ন্যায্য দাবি। এটা বাতিলের কোনো সুযোগ নেই। শিৰা ও চাকরিতে আদিবাসীদের জন্য কোটা বাতিল করা ঠিক হবে না বলে তিনি মন্তব্য করেন।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রবীন্দ্রনাথ সরেন। তিনি বলেন, স্বাধীনতার ৪৭ বছর পরেও আদিবাসীরা অধিকার বঞ্চিত, নির্যাতিত ও নিপীড়িত। পিছিয়ে পড়া এ জনগোষ্ঠিকে এগিয়ে নিয়ে উন্নয়নের মূলধারায় যুক্ত করতে হলে সরকারি সব চাকরিতে বিদ্যমান ৫ শতাংশ কোটা ব্যবস’া বহাল রাখতে হবে। তা না হলে আদিবাসীরা পিছিয়ে পড়বে।
সংবাদ সম্মেলনে অতিথি হিসেবে আরও উপসি’ত ছিলেন- ঐক্যন্যাপের সভাপতি পঙ্কজ ভট্টাচার্য্য, ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক ইয়াসিন আলী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক মেসবাহ কামাল, মানবাধিকার কর্মী নূমান আহম্মদ খান, জাতীয় আদিবাসী পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক বিমল চন্দ্র রাজোয়াড় প্রমুখ।