সবনাজ মোস্তারী স্মৃতি: রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ আগামী শনিবার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে যোগ দেবেন। তারপর পদ্মাপাড়ে সময় কাটাবেন কিছুৰণ। তাই রাজশাহী মহানগরীর শ্রীরামপুর এলাকায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) টি-বাঁধটি সাজিয়ে তুলতে এখন ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে সরকারি কয়েকটি দপ্তর।
গত বছর রাজশাহী সফরে এসেও এখানে কিছুটা সময় কাটিয়েছিলেন রাষ্ট্রপতি। উঁচু বাঁধের ওপর থেকে অবলোকন করেছিলেন ভরা পদ্মার সৌন্দর্য্য। তারপর স্পিডবোটে চড়ে নৌ-ভ্রমণ করেছিলেন কিছু সময়। এবারও তার সফরসূচিতে নৌ-ভ্রমণ রয়েছে। তার আগে রাষ্ট্রপতি কিছু সময় কাটাবেন পদ্মাপাড়ে।
গতকাল মঙ্গলবার সকালে টি-বাঁধে গিয়ে দেখা যায়, রাষ্ট্রপতির আগমন উপলৰে টি-বাঁধের ওপর কংক্রিটের রাস্তা তৈরি করা হয়েছে। রাষ্ট্রপতির বসার জন্য ইট-সিমেন্ট দিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে একটি ছাউনি ঘর। আর রাষ্ট্রপতি যে জায়গাটি দিয়ে স্পিডবোটে উঠবেন, সেখানে জিও ব্যাগ দিয়ে তৈরি করা হচ্ছে একটি ঘাট।
পাউবোর রাজশাহীর শাখা কর্মকর্তা মাহবুব রাসেল বলেন, জেলা প্রশাসনের তত্বাবধানে গত ১৩ সেপ্টেম্বর থেকে প্রস’তিমূলক কাজ শুর্ব হয়েছে। বুধবারের মধ্যে বেশিরভাগ কাজ শেষ হবে। পাউবো ছাড়াও সরকারি বিভিন্ন সংস’া সাজসজ্জার কাজ করছে।
এর মধ্যে রাষ্ট্রপতির বসার জন্য ছাউনি তৈরী করছে গণপূর্ত অধিদপ্তর। আর রাষ্ট্রপতির গত বছরের রাজশাহী সফরের সময় সেখানে একটি টয়লেট তৈরী করেছিল জনস্বাস’্য প্রকৌশল অধিদপ্তর। রাষ্ট্রপতি চলে যাওয়ার পর টয়লেটটি তালাবদ্ধই ছিল। এখন আবার সেটি প্রস’ত করেছে জনস্বাস’্য প্রকৌশল অধিদপ্তর।
পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী মোখলেসুর রহমান জানান, শনিবার ঠিক কখন রাষ্ট্রপতি টি-বাঁধে যাবেন তা নির্দিষ্ট করে তিনি বেধে দেননি। তবে তিনি সেখানে যাওয়ার সম্মতি দিয়েছেন। এ জন্য তারা সব প্রস’তি সম্পন্ন করে রাখছেন।