স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীতে জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ ও ৰুদে ডাক্তার কর্তৃক শিৰার্থীদের স্বাস্থ্য পরীৰা কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে।
গতকাল মঙ্গলবার কাদিরগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়র্বজ্জামান লিটন।
অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মেয়র বলেন, আজকের শিশুরা আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। তাদের সুস্থ সবলভাবে গড়ে তুলতে বছরে দুইবার এ ট্যাবলেট গ্রহণ করতে হবে। সুস্থ দেহে সুস্থ মন। সুস্থ দেহ ছাড়া খেলাধুলা ও পড়াশুনা সম্ভব নয়। তিনি বলেন, শিশুদের কৃমি নিয়ন্ত্রণে খাবার আগে ও টয়লেট থেকে বের হয়ে সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার অভ্যাস, নখ কাটা, পরিচ্ছন্নতাসহ বিভিন্ন স্বাস্থ্য সচেতনতার বিষয়ে শিৰক ও অভিভাবকদের গুর্বত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে হবে। সরকারের জাতীয় এ কর্মসূচি স্বাস্থ্যসেবায় গুর্বত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের শিশু শিৰার্থীদের কৃমি নিয়ন্ত্রণের ট্যাবলেট খাওয়ান মেয়র।
কাদিরগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিৰিকা সাহানা নাসরীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ১১নং ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত কাউন্সিলর রবিউল ইসলাম তজু। স্বাগত বক্তব্য রাখেন রাসিকের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এফ.এ.এম আঞ্জুমান আরা বেগম।
আগামী ৭ অক্টোবর পর্যন্ত মহানগরীর ৪৮১টি স্কুলে ৫ থেকে ১৬ বছর বয়সী ৯৮ হাজার ৭০জন শিৰার্থীকে কৃমির ওষুধ খাওয়ানোর লৰ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন। এদের মধ্যে ছেলে ৪৯ হাজার ৭৬০ জন এবং মেয়ে ৪৮ হাজার ৩১০জন। স্কুলের বাইরে ৪৯৯ জন ছেলে ও মেয়েকে এ ওষুধ খাওয়ানো হবে।