সোনালী ডেস্ক: জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় ১৭টি প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহের জন্য চার হাজার ১৫০ কোটি টাকার ‘রাজশাহী ওয়াসা ভূ-উপরিস্থ পানি শোধনাগার প্রকল্প’টিও রয়েছে। এ প্রকল্পের আওতায় পদ্মার পানি বিশুদ্ধ করে পাইপ লাইনের মাধ্যমে রাজশাহী নগরীতে সরবরাহ করা হবে।
গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কৰে একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে একনেক সভায় প্রকল্পগুলোর অনুমোদন দেওয়া হয়। অনুমোদন হওয়া ১৭ প্রকল্পে মোট ব্যয় হবে ১৪ হাজার ২০০ কোটি ৫৯ লাখ টাকা।
একনেক সভা শেষে প্রকল্পগুলো নিয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন পরিকল্পনা মন্ত্রী আ.হ.ম মুস্তফা কামাল। মন্ত্রী বলেন, সভায় ১৭টি (নতুন ও সংশোধিত) প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে মোট ব্যয় হবে ১৪ হাজার ২০০ কোটি ৫৯ লাখ টাকা। এর মধ্যে সরকারি অর্থায়ন ১১ হাজার ১৯৩ কোটি ৬৯ লাখ টাকা, সংস্থার নিজস্ব অর্থায়ন ২ হাজার ৮১১ কোটি ৬২ লাখ টাকা এবং প্রকল্প সাহায্য ১৯৫ কোটি ২৮ লাখ টাকা।
এদিকে, ‘রাজশাহী ওয়াসা ভূ-উপরিস্থ পানি শোধনাগার প্রকল্প’ অনুমোদন দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা ও সিটি মেয়র এএইচএম খায়র্বজ্জামান লিটন।
উলেৱখ্য, এই প্রকল্পে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার সারেংপুরে পৱ্যান্ট স্থাপন করা হবে। সেখান থেকে পদ্মার পানি পরিশোধন করে পাইপ লাইনে গোদাগাড়ী পৌরসভা ছাড়াও রাজশাহী মহানগরী এবং পবার কাটাখালি ও নওহাটা পৌর এলাকায় সরবরাহ করা হবে। বাংলাদেশ ও চীন সরকার যৌথভাবে এই প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। চার বছরের এই প্রকল্পের মেয়াদ জুলাই ২০১৮ থেকে জুন ২০২২ সাল পর্যন্ত সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে।