বাঘা প্রতিনিধি: ট্রেনের চালকের সাথে আতাঁত করে রেলের তেল চুরির সময় ২ জনকে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন যাত্রী ও স’ানীয়রা। শনিবার রাত পৌনে ৯টার দিকে বাঘা উপজেলার আড়ানী স্টেশন থেকে তেল চুরির সময় তাদের আটক করা হয়। রোববার সকালে বাঘা থানার পুলিশ তাদের আদালতের মাধ্যমে জেলে প্রেরণ করে।
আটককৃতরা হলেন, নাটোরের লালপুর উপজেলার গোসাইপুর গ্রামের আফসার আলীর ছেলে ইমরান খান (৩০) ও একই উপজেলার ঈশরপাড়া গ্রামের সোনামলিৱর ছেলে আনোয়ার হোসেন (২০)। বিষয়টি নিশ্চিত করেন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মহসীন আলী।
থানা সূত্রে জানা যায়, শনিবার রাতে রাজশাহী থেকে ঈশ্বরদীগামী কমিউটার এক্সপ্রেস ট্রেনটি আড়ানী স্টেশনে এসে পৌঁছে রাত ৮ টা ৪৩ মিনিটে ও ছাড়ে রাত ১০ টা ২০ মিনিটে। প্রায় দেড় ঘণ্টা ট্রেনের যাত্রীদের ভোগান্তিতে থাকতে হয়। দীর্ঘৰণ অপেৰায় থাকার পরও ট্রেন না ছাড়ায় যাত্রীরা ৰুব্ধ হয়। এদিকে হঠাৎ করে ট্রেনের ইঞ্জিনে বড় বড় তেলের জার রাখায় যাত্রীদের সন্দেহ হয়। কেন ট্রেন ছাড়তে বিলম্ব হচ্ছে অনুসন্ধানে ট্রেনের যাত্রী ও স’ানীয়রা চালকের কাছে জানতে চায়। বিষয়টি নিয়ে ট্রেন চালকের সাথে তাদের কথা কাটাকাটি হয়। এরপর স’ানীয়রা বিষয়টি টের পেয়ে সেখানে ছুটে যান। এ সময় ৭০ লিটার তেল ভর্তি জারসহ ২ জনকে হাতে নাতে আটক করে ট্রেনের যাত্রী ও স’ানীয়রা। খবর দেয়া হয় বাঘা থানায়। পরে পুলিশ সেখানে পৌঁছে তাদের থানায় নিয়ে যায়।
তবে এ বিষয়ে স্টেশনমাস্টারসহ সংশিৱষ্ট কেউ কোন কথা বলতে চাননি। রাত ৮টায় স্টেশনমাস্টার একরামুল হকের দায়িত্ব পালনের সময় পার হয়ে গেলে তিনি চলে যান। পরবর্তীতে হাসানুল হক দায়িত্ব পালন করতে থাকেন। তিনি বলেন, এই বিষয়ে আমার কিছু জানা নেই।
বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মহসীন আলী বলেন, তেল চুরির দায়ে আটক ২ জনকে প্রথমে বাঘা থানায় রাখা হয়। রোববার সকালে তাদের আদালেতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।